জেনে নিন Paidverts থেকে প্রতিদিন 10 ডলার আয় করার সকল পদ্ধতি।

Paidverts কি?

ইন্টারনেট থেকে আয় করার ইচ্ছা আছে এমন মানুষের সংখ্যা কম নয়। বর্তমান সময়ে ইন্টারনেটে সবাই নিজেদের যোগ্যতা ও দক্ষতাকে কাজে লাগিয়ে আয় করছেন। কিন্তু ইন্টারনেট থেকে কোনও ধরনের কাজের অভিজ্ঞতা ও দক্ষতা ছাড়াই যারা কিছু টাকা আয় করতে চান, পিটিসি বা বিজ্ঞাপন দেখে আয়ের কাজটি তাদের জন্য। ইন্টারনেট সার্চ করলে কয়েক হাজারেরও বেশি এমন ওয়েবসাইট পাওয়া যাবে যেখানে বিজ্ঞাপন দেখে আয়ের সুযোগ রয়েছে। সমস্যাটা হলো এদের বেশির ভাগ ওয়েবসাইটই কিছুদিন কাজ করার পর বন্ধ হয়ে যায় বা ঠিকমতো পারিশ্রমিক প্রদান করেনা। কিন্তু সব ওয়েবসাইট এক ধরনের নয়, এমনও কিছু ওয়েবসাইট রয়েছে যারা শুরু থেকেই কর্মীদের নিয়মিতভাবে তাদের পারিশ্রমিক প্রদান করে আসছে আর পেইডভার্টস তাদের মধ্যে অন্যতম। ভালোভাবে কাজ করলে পেইডভার্টস থেকে প্রতিদিন ১০ ডলার আয় করা খুবই সহজ একটি কাজ।

পেইডভার্টস এমন একটি ওয়েবসাইট যারা বিভিন্ন ওয়েবসাইটের কাছ থেকে তাদের বিজ্ঞাপন মানুষের কাছে পৌছে দেওয়ার চুক্তিতে অর্থ নিয়ে থাকে এবং সেই অর্থের একটি অংশ পেইডভার্টসে যারা কাজ করে তাদের বিজ্ঞাপন দেখার বিনিময়ে প্রদান করে থাকে। এখন পর্যন্ত পেইডভার্টস তাদের কর্মীদের নিয়মিত পেমেন্ট দিয়ে আসার কারণে পিটিসি সাইটগুলোর মধ্যে এটি সবচেয়ে বেশি বিশ্বাসযোগ্যতা অর্জন করতে সক্ষম হয়েছে। বিজ্ঞাপন দেখে আয়ের দিক থেকে পেইডভার্টসকে একটি বিপ্লব বললে ভুল হবে না। পেইডভার্টস আমাদের সামনে উপস্থাপন করেছে বিজ্ঞাপন দেখে ভালো পরিমাণ আয় করার নতুন নতুন পদ্ধতি। আপনি জেনে অবাক হবেন যে, পেইডভার্টস থেকে আপনি প্রতিদিন ৫-২০ ডলার পর্যন্ত আয় করতে পারবেন তাও আবার কাউকে রেফার করা ছাড়াই।

PaidVerts

আমি জানি, এমন অনেকেই রয়েছেন যারা আর্টিকেলের এই অংশটুকু পড়েই পেইডভার্টে একাউন্ট তৈরী করার জন্য ব্যস্ত হয়ে গিয়েছেন। তাদের উদ্দেশ্যে বলছি, লাফ দিয়ে পেইডভার্টসে যেয়ে একাউন্ট করে বিজ্ঞাপন দেখার পূর্বে আপনাকে কিছু কৌশল জানতে হবে। যদি তা না জেনেই কাজ করেন তাহলে পেইডভার্টস থেকে ভালো পরিমাণ আয় করা আপনার জন্য অনেক বেশি কষ্টের হবে। তাই কাজ শুরু করার আগে চলুন পেইডভার্টস সম্পর্কে কিছু সাধারণ তথ্য জেনে নিই।

  • পেইডভার্টসে জয়েন করতে আপনার কোন টাকা পয়সা লাগবে না। এটি সম্পূর্ণভাবে বিনামূল্যে, Paidverts এ ক্লিক করে এক নজর চোখ বুলিয়ে নিন।
  • বিজ্ঞাপন দেখে আয় করার জন্য এটি খুবই বিশ্বস্ত একঠি প্লাটফর্ম এবং একই সাথে MyTrafficValue এর একটি অংশ। তাই এখানে কাজ করার সময় মনে কোন সন্দেহ বা ভয়ের কারণ নেই।
  • পেইডভার্টস পিটিসি জগতে বিপ্লব স্বরুপ। শুধুমাত্র এই একটি ওয়েবসাইটে কাজ করার মাধ্যমে অনেক ভাল পরিমাণ অর্থ আয় করা সম্ভব।শুরুর দিকে কম পরিমাণ টাকা ইনকাম হলেও যদি পরিশ্রম করা হয় তবে কয়েক মাসেই মধ্যেই পেইডভার্টস থেকে ভালো পরিমাণ টাকা ইনকাম করা যায়।
  • পেইডভার্টস এর বিজ্ঞাপণ গুলিকে সাধারণত ২ ভাগে ভাগ করা যায়। অ্যাকটিভেশন অ্যাড এবং পেইড অ্যাড। অ্যাকটিভেশন অ্যাডের বিপরীতে পেইডভার্টস আপনাকে BAP অর্থাৎ বোনাস অ্যাড পয়েন্ট দিয়ে থাকে (পরবর্তীতে BAP নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা হবে) আর পেইড অ্যাডের বিপরীতে আপনি অর্থ লাভ করবেন। এছাড়া অতিরিক্ত অর্থ আয়ের জন্য পেইডভার্টসে বিভিন্ন আপগ্রেডের ব্যবস্থা রয়েছে।
  • পেইডভার্টস তাদের কর্মীদের পেপাল, পারফক্টমানি, পেইজা ইত্যাদির মাধ্যমে পারিশ্রমিক প্রদান করে থাকে এবং এগুলি পৃথিবীর সবচেয়ে ভালো অনলাইন পেমেন্ট সিস্টেম।
  • পেইডভার্টসে একটি ৩০ সেকেন্ডের বিজ্ঞাপন থেকে কি পরিমাণ ইনকাম করা যায় তার ছোট্ট একটি উদাহরণ স্ক্রিনশটের মাধ্যমে তুলে ধরা হলো।

জেনে নিন Paidverts থেকে প্রতিদিন 10 ডলার আয় করার সকল পদ্ধতি।

পেইডভার্টস থেকে নি:সন্দেহে প্রতিদিন কমপক্ষে ১০ ডলার আয় করা সম্ভব। আপনি যদি মনে করেন যে পেইডভার্টসে পরিশ্রম করার মত সময় এবং দক্ষতা আপনার রয়েছে একই সাথে আপনি কাজটিতে আগ্রহী, তাহলে অবশ্যই এই ৬টি পদ্ধতিতে কাজ করতে ভুলবেন না। মনে রাখবেন আপনি যদি পেইডভার্টসকে বুঝতেই না পারেন তাহলে এখান থেকে কখনোই ভালো কিছু আশা করাটা বোকামি।

প্রথম ধাপ: পেইডভার্টসে জয়েন করুন

পেইডভার্টসে কাজ করার জন্য প্রথমেই আপনাকে একটি ফ্রি একাউন্ট তৈরী করতে হবে। পেইডভার্টসে একাউন্ট তৈরীর জন্য এখানে ক্লিক করুন তারপর নির্ধারিত ফরমে আপনার প্রয়োজনীয় তথ্যাবলী দিয়ে পূরণ করুন। এরপর তাদের টার্মস এন্ড কন্ডিশনের রাজি হলে নির্দিষ্ট স্থানে ক্লিক করে রেজিষ্ট্রেশন প্রক্রিয়া সম্পন্ন করে ফেলুন। রেজিষ্ট্রেশন ফর্মে তথ্য প্রদানের ক্ষেত্রে অবশ্যই একটি স্বক্রিয় ইমেইল ব্যবহার করুন এবং নিজের নাম, ঠিকানা ও অন্যান্য তথ্য সঠিকভাবে দিন।

দ্বিতীয় ধাপ: BAP অর্থাৎ বোনাস অ্যাড পয়েন্ট জমা করুন

পেইডভার্টস এ কাজের কৌশলের মধ্যে এটি সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ। কারণ পেইডভার্টস থেকে বড় অংকের অর্থ আয় করার জন্য আপনাকে BAP অর্থাৎ বোনাস অ্যাড পয়েন্ট সিস্টেম সম্পর্কে পরিষ্কার ধারণা রাখতে হবে। সহজ ভাষায় বলতে গেলে BAP (Bonus Ad Points) হচ্ছে পেইডভার্টসের কারেন্সি বা পয়েন্ট সিস্টেম।

পেইডভার্টসে কাজ করার সময় আপনি পেইড অ্যাডগুলি কখনোই সরাসরি বা প্রথম থেকেই আপনার একাউন্টে পাবেন না। সময়ের সাথে সাথে আপনার যত বোনাস অ্যাড পয়েন্ট থাকবে তার উপর ভিত্তি করে পেইড অ্যাড আসা শুরু হবে। মনে রাখবেন যত বেশি বোনাস অ্যাড পয়েন্ট জমবে তত বেশি মূল্যের বিজ্ঞাপন আপনি পাবেন। তাই আপনাকে যত বেশি সম্ভব বোনাস অ্যাড পয়েন্ট সংগ্রহ করতে থাকতে হবে। পেইড অ্যাডের পাশাপাশি বোনাস অ্যাড পয়েন্ট সংগ্রহের মাধ্যমে পেইডভার্টর্স থেকে আরো অনেক সুবিধা পাওয়া পাবেন ।

সফলভাবে আপনার একাউন্ডে লগইন করার পর বিজ্ঞাপন দেখার জন্য আপনাকে Paid Ads এ ক্লিক করতে হবে। বিজ্ঞাপন দেখার পূর্বে আপনাকে অবশ্যই পেইডভার্টসের দেয়া ৩টি ইমেজ টাইপ করতে হবে। তবে সুবিধা হলো যে আপনি খুব সহজেই এই লেখাগুলো টেক্সট্ বক্সের সামনে থাকা কপি-পেস্ট আইকনে ক্লিক করেই ঘরগুলি পূরণ করতে পারবেন।

প্রাথমিক পর্যায়ে আপনি প্রতিদিন ১৬টি অ্যাকটিভেশন আ্যাড পাবেন। প্রথম দিকে প্রতি অ্যাডের জন্য ২২ BAP এবং পরবর্তীতে ২৫ BAP পাবেন। তার মানে ১৬টি অ্যাড দেখার বিনিময়ে আপনি ৪০০ BAP লাভ করবেন। খেয়াল রাখার বিষয় হলো যে এই ১৬টি অ্যাড দেখার জন্য আপনার হাতে ১৮ ঘন্টা সময় থাকবে। যদি এই ১৮ ঘন্টার মধ্যে আপনি অ্যাডগুলি না দেখেন তাহলে সেগুলো দেখার মেয়াদ শেষ হয়ে যাবে। অতএব, প্রথম দিনে ১৬টি অ্যাড দেখার পরিবর্তে আপনি কোন অর্থই পাচ্ছেন না তার বদলে আপনি পাচ্ছেন ১৬টি অ্যাকটিভেশন আ্যাড যা আপনাকে দিচ্ছে ৪০০ BAP ।

তৃতীয় ধাপ: BAP থেকে অর্থ আয়

পেইডভার্টস বিজ্ঞাপন দেখার পরিবর্তে আপনাকে যে BAP দিয়ে থাকে তার প্রতিটির মূল্য ০.০০০৫ ডলার। তাহলে এটি সহজেই অনুমান করা যায় যে, পরবর্তী দিনে আপনি ১৬টি অ্যাকটিভেশন বিজ্ঞাপনের সাথে পাচ্ছেন ৪০০ BAP যার মূল্য ৪০০ x ০.০০০৫= ০.২ ডলার।

আপনাকে অবশ্যই প্রতিদিনে কমপক্ষে ২ বার আপনার একাউন্ট চেক করতে হবে। অন্যথা আপনি আপনার একাউন্টে আসা পেইড অ্যাড মিস করতে পারেন। তাহলে পরবর্তী দিনেও আপনি সকল অ্যাকটিভেশন অ্যাড এবং পেইড অ্যাড দেখার পরিবর্তে ৪০০ BAP এবং ০.২ ডলার পাচ্ছেন।

চতুর্থ ধাপ: ০.৫ ডলারের আপগ্রেড কিনে মেয়াদ শেষ হওয়া অ্যাড পুনরায় দেখুন

এটি পেইডভার্টস থেকে বেশি অর্থ ইনকামের একটি গুরুত্বপূর্ণ কৌশল। আপনার একাউন্টে যদি ২৫০০ BAP থাকে তাহলে আপনি তার বিনিময়ে ০.০৫ ডলারের আপগ্রেড কিনতে পারবেন যা আপনাকে মেয়াদ উত্তীর্ণ হওয়া বিজ্ঞাপন পূনরায় দেখার সুযোগ দিবে।

আমরা আগেই বলেছি যে পেইডভার্টসে ১৮ ঘন্টার ভিতরে কেউ যদি তার জন্য নির্ধারিত বিজ্ঞাপন না দেখে তাহলে সেটি তার জন্য মেয়াদ উত্তীর্ণ হিসাবে গণ্য হয়। তাই যদি আপনি ০.০৫ ডলারের আপগ্রেড কেনেন তাহলে আপনি আপনার পেইড অ্যাড এবং অ্যাকটিভেশন অ্যাড এর পাশাপাশি ১ ডলার বা তারও বেশি মূল্যের রিসাইকেলড্ অ্যাড পেতে পারেন।

তাহলে উপরের আপগ্রেডটি থেকে আপনি (১ ডলারের অ্যাড আপনি পাচ্ছেন – ০.০৫ ডলার দিয়ে আপনি আপগ্রেড কিনেছেন) ০.৯৫ ডলারের মুনাফা লাভ করছেন। আপনার আপগ্রেড এর মেয়াদ শেষ হয়ে গেলেও চিন্তার কোন কারণ নেই, কারণ এটি আবারো কেনার সুযোগ রয়েছে। আপগ্রেড আপনি যে পরিমাণ অর্থ ব্যায় করে কিনছেন সবসময় তার বেশিই আপনি ফেরত পাচ্ছেন। তাই আপগ্রেড কেনার ক্ষেত্রে কৃপণতা করা আপনার জন্য ক্ষতিকর প্রমাণিত হবে।

পঞ্চম ধাপ: একটি অ্যাড প্যাক কিনুন

পেইডভার্টসে অধিক পরিমাণ আয় করার এটিও একটি গুরুত্বপূর্ণ কৌশল। যদি আপনি ১ ডলারের বিপরীতে একটি অ্যাড প্যাক কেনেক তাহলে আপনি বিভিন্ন ভাবে লাভবান হবেন।

প্রথমত, আপনি ২৪০০+ BAP পাবেন যা আপনারে ১.৫৫ ডলারের অ্যাড দেখার সমপরিমাণ অর্থ প্রদান করবে। দ্বিতীয়ত, আপনি আপনার ওয়েবসাইটের জন্য ৩০ সেকেন্ডের ৫০টি ভিজিটর পাবেন এবং তৃতীয়ত, আপনি আপনার ব্যানার অ্যাডে ৫০টি ইমপ্রেসন লাভ করবেন।

সবসময় চেষ্টা করবেন যেন আপনি বেশির থেকে বেশি BAP জমা করতে পারেন। কারণ আপনি অনেক বেশি দামী বিজ্ঞাপন তখনই পাবেন যখন আপনার একাউন্টে অনেক বেশি BAP থাকবে। আপনার একাউন্টে কত BAP জমা আছে তার উপর ভিত্তি করে আপনি ১ ডলার, ২ ডলার থেকে শুরু করে ৫০ ডলারেরও পেইড অ্যাড পেতে পারেন।

ষষ্ঠ ধাপ: রেফার করুন এবং কমিশন নিন

যেকোন পিটিসি সাইটের জন্য রেফারেল প্রোগ্রাম খুবই গুরুত্বপূর্ণ। পেইডভার্টসও এর ব্যতিক্রম নয়। যদি আপনি কাউকে রেফার করেন তাহলে আপনি আজীবনের জন্য যে তার একাউন্টের বিজ্ঞাপন দেখে যে পরিমান টাকা আয় করবে তার ১০% আপনি পাবেন। রেফারেল লিংক সাধারণত মেম্বার এরিয়াতে দেওয়া থাকে। যেহেতু এটি আপনার আয় বৃদ্ধিতে সহায়ক তাই ফেসবুক, টুইটার, হোয়াট অ্যাপসহ যতভাবে সম্ভব নিজের রেফারেল লিংকের মাধ্যমে মেম্বার যোগ করার চেষ্টা করুন। যদি আপনি পেইডভার্টসের মেম্বার বা মেম্বারশীপ হোল্ডার হয়ে থাকেন তাহলে আপনি প্রতি রিসাইকেল অ্যাড এর বিনিময়ে ২ ডলারের মত ইনকাম করতে পারেন। যদি তা না হয় তাহলে পেইডভার্টসে গ্রীড ক্লিক, ক্যাশ অফার বা বিভিন্ন গেইম খেলার মাধ্যমেও ইনকাম করার সুযোগ রয়েছে।

PaidVerts

সবশেষে বলা যায় যে, ইন্টারনেটে আয় করার পদ্ধতির কোন শেষ নেই। এখানে দক্ষদের জন্য যেমন রয়েছে অফুরন্ত আয় করার সুযোগ তেমনি যারা নতুন করে শুরু করতে চায় তাদের জন্য রয়েছে বিজ্ঞাপন দেখে, ভিডিও দেখে, অ্যাপ ডাউনলোড করে আয়ের মত অসংখ্য ছোট ছোট কাজ। আমাদের দেশে কোন ওয়েবসাইট কেমন এটি না জেনেই অনেকেই নিম্নমানের ওয়েবসাইটগুলিতে কাজ করে প্রতারিত হন এবং একসময় কাজ করা ছেড়ে দেন। আমাদের দেখানো ৬টি ধাপ অনুসরণ করার মাধ্যমে পেইডভার্টস থেকে প্রতিদিন ১০ ডলার আয় করা সম্ভব বলে আমরা মনে করি। তাই ইন্টারনেটে কোন কাজের আগে বিশেষ করে পিটিসি সাইটগুলোতে কাজের আগে অবশ্যই ওয়েবসাইট সম্পর্কে, তাদের পেমেন্ট পদ্ধতিগুলো কি কি এবং তারা কেমন পেমেন্ট দেয় এসব বিষয়ে নিশ্চিত হয়ে তারপরেই কাজ শুরু করা উচিত।

পোষ্ট ক্রেডিট: রাশেদুল ইসলাম পাভেল